কারান্তরীণ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্যারোলের মুক্তির বিষয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুর পৌনে ১২টার দিকে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তির বিষয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেব আমার সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন, আলাপ হয়েছে। তাদের দলের পক্ষ থেকে তিনি খালেদা জিয়ার মুক্তি চেয়েছেন। আমি যেন বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করি।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়া যে মামলায় কারাগারে রয়েছেন তা হচ্ছে দুর্নীতির মামলা। এটা কোনো রাজনৈতিক মামলা নয়। রাজনৈতিক মামলা হলে সরকার বিবেচনা করতে পারতো। বিষয়টা এখন সম্পূর্ণ আদালতের এখতিয়ার।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি এবং খালেদা জিয়ার স্বজনদের পক্ষ থেকে বিচ্ছিন্নভাবে খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে বলছেন, তবে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো আবেদন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেননি।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সরকার অমানবিক আচরণ করতে পারে না।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে তার (খালেদা জিয়া) চিকিৎসা চলছে। তার চিকিৎসার বিষয়টি সরকারের সুনজরে আছে।