ব্যারিস্টার সুমনের সাজানো মামলায় ন্যায়বিচার পায়নি আমার ভাই

62
ন্যায় বিচার
ছবি সংগৃহিত

২৪ ঘন্টা ডেস্ক : ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির ভিডিও ফুটেজ সামাজিকমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ায় আইসিটি মামলায় ফেনীর সোনাগাজী থানার ওসি মোয়াজ্জেমকে কারাদণ্ড দেয়ার ঘটনাকে সাজানো বলে উল্লেখ করেছেন মোয়াজ্জেমের ভাই খন্দকার আরিফুজ্জামান। 

তিনি বলেন, আমার ভাই ন্যায়বিচার পায়নি। মিডিয়া ট্রায়ালে ব্যারিস্টার সুমনের সাজানো মামলায় সাজা হয়েছে আমার ভাইয়ের। আমরা উচ্চ আদালতে আপিল করবো। আশা করছি, সেখানে ন্যায়বিচার পাবো।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সাইবার ট্রাইব্যুনালে রায় ঘোষণার পর প্রতিক্রিয়ায় তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। এসময় খন্দকার আরিফুজ্জামান আরো বলেন, ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের মামলা করার এখতিয়ার নেই। তারপরও তার মিথ্যা ও সাজানো মামলায় ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনকে সাজা দেয়া হয়েছে। মিডিয়া ট্রায়ালের কারণে সাজানো মামলায় আজ আমার ভাইকে সাজা দেয়া হলো।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আস-শামস জগলুল হোসেন ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনের (আইসিটি) মামলায় ওসি মোয়াজ্জেমকে আট বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেন। একই সঙ্গে তাকে ১৫ লাখ টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও এক বছর কারাদণ্ড ভোগ করার আদেশ দেন। জরিমানার টাকা নুসরাতের পরিবারকে দিতে বলা হয়েছে রায়ে।